আজ, শনিবার | ৪ঠা ফাল্গুন, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ | ১৫ই ফেব্রুয়ারি, ২০১৯ ইং | রাত ১:৩২                                                                          

একদিন বাংলাদেশ কল্যাণকর রাষ্ট্রের পরিচয় পাবে-প্রকাশনা অনুষ্ঠানে জেলা ও দায়রা জজ শেখ মফিজুর রহমান

একদিন বাংলাদেশ কল্যাণকর রাষ্ট্রের পরিচয় পাবে-প্রকাশনা অনুষ্ঠানে জেলা ও দায়রা জজ শেখ মফিজুর রহমান

আবু বাসার আখন্দ : মাগুরা জেলা লিগ্যাল এইড কমিটির প্রকাশনা ‘বিচারের বাণি’র দ্বিতীয় সংখ্যার উদ্বোধনী অনুষ্ঠান রবিবার জেলা জজ আদালতের সম্মেলন কক্ষে অনুষ্ঠিত হয়েছে।

ন্যায় বিচার এবং শাসনের প্রতিক নিক্তি-তরোবারি হাতে দৃঢ়চেতা গ্রিকদেবি থেমিসের প্রতিচিত্রের প্রচ্ছদ। ১শত ১৬ পৃষ্ঠার চমত্কার মুদ্রন ও শোভিত কাগজের স্মরণিকাটিতে বিশটি প্রবন্ধ, দুটি কবিতা এবং লিগ্যাল এইড কমিটির বিগত দিনের ‍কার্যক্রমের ফটোচিত্র দিয়ে সাজানো হয়েছে। থেমিসের ছবির নীচে বিচারের মূল ভিত্তি হিসেবে উপস্থাপন করা হয়েছে ম্যাক্সিম অব ইকুইটি’র অংশ।

মাগুরা জেলা লিগ্যাল এইড কমিটির চেয়ারম্যান জেলা ও দায়রা জজ শেখ মফিজুর রহমানের লেখা ‘স্বাধীনতার ঘোষণাপত্র-বাংলাদেশ অভ্যূদয়ের মৌলিক দলিল-একটি প্রয়োজনীয় সহজপাঠ’ শিরোণামে প্রবন্ধটি স্মরণিকার অন্যতম প্রধান উপজীব্য। এছাড়া প্রবন্ধগুলোর মধ্যে জেলা লিগ্যাল এইড কমিটির দায়িত্বশীল বিভিন্ন কর্মকর্তাদের লেখা যেমন স্থান পেয়েছে তেমনি স্থান পেয়েছে স্থানীয় আইনজীবী, গবেষক, মানবাধিকার কর্মীদের তথ্যবহুল প্রবন্ধ। যেসব লেখার মধ্যে মাগুরা জেলা লিগ্যাল এইড কমিটির কার্যক্রমের ইতিবাচক, যোক্তিক এবং সময়োপযোগী বিভিন্ন বিষয় উঠে এসেছে।

সিনিয়র আইনজীবী মো. রোকনুজ্জামানের ‘সার্কভূক্ত দেশে লিগ্যাল এইড কার্যক্রম’ শিরোণামের গবেষণাধর্মী লেখাটি প্রকাশনা অনুষ্ঠানে উপস্থিত অতিথিদের নজর কাড়তে সক্ষম হয়েছে।

‘জেলা জজদের অক্লান্ত পরিশ্রমের ফলেই বাংলাদেশের গাঁও গেরামে বিত্তহীন বিচার প্রার্থিদের মুখে হাসি’-প্রতিপাদ্যকে সামনে রেখে এড. রোকনুজ্জামান তার লেখার মধ্যে এই দেশে লিগ্যাল এইড কার্যক্রমের মাধ্যমে শেখ মফিজুর রহমান নামে একজন বিচারকের নেতৃত্বে কীভাবে মাগুরা জেলা লিগ্যাল এইড কমিটি স্বতন্ত্র বৈশিষ্ট নিয়ে দেশের মধ্যে ভিন্ন উচ্চতায় উঠে এসেছে সেটি তুলে ধরার সুযোগ পেয়েছেন। পাশাপাশি সার্কভূক্ত দেশগুলোর বিভিন্ন অঞ্চলে পরিচালিত লিগ্যাল এইড কার্যক্রমের সঙ্গে বাংলাদেশ এবং দেশের মধ্যে অনন্যো মাগুরা জেলা লিগ্যাল এইডের সফলতার তুলনামূলক বিচার উপস্থাপন করেছেন।

দীর্ঘ সময় ধরে নানা তথ্য উপাত্য সংগ্রহ ও উপস্থাপনের মাধ্যমে লেখক এড. রোকনুজ্জামান মাগুরা জেলা লিগ্যাল এইড কমিটির কার্যক্রমকে দক্ষিণ এশিয়ার সার্কভূক্ত দেশসমূহের মধ্যে শীর্ষস্থান দিয়েছেন। আর এই কমিটির চেয়ারম্যান জেলা ও দায়রা জজ শেখ মফিজুর রহমানের এক্সট্রা জুডিশিয়াল একটিভিটিস এবং জনকল্যাণকর কাজ বাংলাদেশের মাঠ পর্যায়ের জুডিশিয়াল সিস্টেমকে বিশ্বের মাঝে গৌরব উজ্জ্বল করেছে বলে তিনি তার লেখায় দ্বিধা-সংকোচ ছাড়াই তুলে ধরার প্রয়াস পেয়েছেন।

জেলা লিগ্যাল এইড কর্মকর্তা রোমানা রোজীর উপস্থাপনায় প্রকাশনা অনুষ্ঠানে ‘বিচারের বাণি’ প্রকাশনা এবং বিগত সময়ে পরিচালিত জেলা কমিটির কার্যক্রমের বিভিন্ন বিষয়ের উপর আলোকপাত করে বক্তব্য রাখেন নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইবুনালের বিচারক প্রণয় কুমার দাশ, চীফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট সুনন্দ বাগচী, মাগুরার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার তারিকুল ইসলাম, সাতক্ষিরা জেল জজ আদালতের সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট ইয়াসমিন নাহার, জেলা আইনজীবী সমিতির সভাপতি এড. আবদুল মজিদ, সাধারণ সম্পাদক এড. সাজিদুর রহমান সংগ্রাম, বেসরকারি কারা পরিদর্শক মানবাধিকার কর্মী লিপিকা দত্ত, সহকারী জজ অনুশ্রী রায় সহ আরো অনেকে।

প্রকাশনা অনুষ্ঠানের সভাপতি মাগুরা জেলা লিগ্যাল এইড কমিটির চেয়ারম্যান জেলা ও দায়রা জজ শেখ মফিজুর রহমান সুন্দর প্রকাশনাটির মু্দ্রন থেকে শুরু করে লেখক, গবেষক যারা অক্লান্ত পরিশ্রম করেছেন তাদেরকে ধন্যবাদ জানিয়ে বক্তব্য রাখেন।

তিনি বলেন-বাঙ্গালি জাতির মহানায়ক স্বপ্নদষ্টা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান যে মানবিক মহাসমাজ গড়ে তোলার স্বপ্ন দেখেছিলেন তার সেই স্বপ্নকে আমরা এগিয়ে নিয়ে যেতে চাই। সত্য, সুন্দর, কল্যাণ ও আনন্দময় বিচার বিভাগ গড়ে তোলার মধ্য দিয়ে অবশ্যই একদিন আমরা সেই লক্ষ্য পূরণে সক্ষম হবো। অবশ্যই একদিন বাংলাদেশ কল্যাণকর রাষ্ট্রের পরিচয় পাবে।

শেয়ার করুন...




©All rights reserved Magura Protidin.
IT & Technical Support :BiswaJit