আজ, সোমবার | ১১ই শ্রাবণ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ | ২৬শে জুলাই, ২০২১ ইং | রাত ৯:৩৫

ব্রেকিং নিউজ :
মাগুরার দুরাননগরে যুবকদের শ্রম বিক্রির অর্থে দরিদ্র মানুষের ঘরে ত্রাণ মহামারি করোনা : হেসে উঠুক আমাদের ভালবাসার পৃথিবী মাগুরায় করোনা রোগী: ভয় নয়, আরও দায়িত্বশীল হই চাউলিয়া ইউনিয়নের বিভিন্ন গ্রামে ত্রাণ নিয়ে অসহায় মানুষের পাশে সাহেব আলি ছকাতি মাগুরায় ঢাকা থেকে ফেরা আরো এক যুবক করোনা আক্রান্ত গ্রাম লক ডাউন ঘোষণা মাগুরায় ৫ শতাধিক ইমাম মোয়াজ্জিনের মধ্যে এমপি শিখরের নগদ অর্থ ও খাদ্য সহায়তা প্রদান মাগুরায় আশুলিয়া থেকে ফেরত যুবক করোনায় আক্রান্ত গ্রাম লকডাউন মাগুরায় ইঞ্জিনিয়ার মিরাজের নেতৃত্বে ১৪শত পরিবারের মধ্যে ত্রাণ ও স্যানিটাইজার বিতরণ মাগুরাসহ যশোর অঞ্চলে জনসচেতনায় কাজ করে যাচ্ছে সেনা সদস্যরা করোনা প্রতিরোধে মাগুরা সিভিল সার্জনকে জাসদের ৭টি প্রস্তাব
মাগুরার শ্রীপুরে গৃহবধূ ধর্ষণ : ভিডিও উদ্ধার চেষ্টায় পুলিশ

মাগুরার শ্রীপুরে গৃহবধূ ধর্ষণ : ভিডিও উদ্ধার চেষ্টায় পুলিশ

মাগুরা প্রতিদিন ডটকম : সিগারেট চুরির মামলায় গ্রেফতার দেখানো সেই দুই যুবককে শেষ পর্যন্ত ধর্ষন মামলায় শ্যোন এরেস্ট দেখানো হয়েছে। এর আগে ধর্ষণের শিকার গৃহবধূটি মঙ্গলবার রাতে শ্রীপুর থানায় নারী নির্যাতন দমন ও পর্ণগ্রাফি নিয়ন্ত্রণ আইনে মামলা দায়ের করেন। এ মামলার আসামি রবিউল এবং আনিস মাগুরার শ্রীপুর উপজেলা আওয়ামীলীগ নেতা ইউপি চেয়ারম্যান মুতাসিম বিল্লাহ সংগ্রামের ঘনিষ্টজন বলে পরিচিত।

মাগুরার চরশ্রীপুর গ্রামের কৃষক পরিবারের নববধূ মঙ্গলবার ভোরে বাবার বাড়িতে যাওয়ার পথে দুই লম্পটের লালসার শিকার হয়। শ্রীপুর উপজেলার বরিশাট গ্রামের রবিউল এবং আনিস নামে দুই যুবক কুড়ি বছর বয়সি ওই গৃহবধূকে রাস্তা থেকে ধরে নিয়ে পাশেই শ্মশান ঘাটে নিয়ে ধর্ষণ করে। এ সময় তারা ধর্ষণের ভিডিও ধারণ করে। কিন্তু মেয়েটির চিত্কারে এলাকাবাসি ছুটে আসলে তারা পালিয়ে যায়। এ ঘটনার পর এলাকাবাসির অভিযোগের প্রেক্ষিতে স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান মুতাসিম বিল্লাহ সংগ্রাম ওই দুই যুবককে আটক করে পুলিশে সোপর্দ করে।

নির্যাতনের শিকার গৃহবধূটি জানায়, আমার ফোন দিয়েই তারা ভিডিও করেছে। কিন্তু পালিয়ে যাওয়ার সময় মেমোরি কার্ড এবং গলার চেইন নিয়ে যায়। পরে সংগ্রাম চেয়ারম্যান আমার চেইন ফেরত দিলেও মেমোরিকার্ড দেয়নি।

এ বিষয়ে স্থানীয় শ্রীকোল ইউপি চেয়ারম্যান মুতাসিম বিল্লাহ সংগ্রামের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তার কাছে ধারণকৃত ভিডিওর মেমোরি কার্ড নেই বলে দাবি করেন। তাছাড়া ঘটনার দিনে কেউ তাকে এ বিষয়ে কিছু জানায়নি বলে জানান।

নির্যাতনের শিকার গৃহবধূর দায়েরকৃত মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা রাসেল মিয়া বলেন, মেমোরি কার্ডটি উদ্ধারে সর্বতো চেষ্টা চালানো হচ্ছে। এছাড়া মামলাাটি দায়েরের পর বুধবার সকালেই তার ডাক্তারি পরীক্ষা সম্পন্ন হয়েছে। পরীক্ষার রিপোর্ট পেলে খুব তাড়াতাড়ি এ মামলার চার্জশিট দেয়া সম্ভব হবে।

শেয়ার করুন...




©All rights reserved Magura Protidin.
IT & Technical Support :BiswaJit