আজ, বুধবার | ৫ই কার্তিক, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ | ২১শে অক্টোবর, ২০২০ ইং | দুপুর ২:০৮

ব্রেকিং নিউজ :
মাগুরার দুরাননগরে যুবকদের শ্রম বিক্রির অর্থে দরিদ্র মানুষের ঘরে ত্রাণ মহামারি করোনা : হেসে উঠুক আমাদের ভালবাসার পৃথিবী মাগুরায় করোনা রোগী: ভয় নয়, আরও দায়িত্বশীল হই চাউলিয়া ইউনিয়নের বিভিন্ন গ্রামে ত্রাণ নিয়ে অসহায় মানুষের পাশে সাহেব আলি ছকাতি মাগুরায় ঢাকা থেকে ফেরা আরো এক যুবক করোনা আক্রান্ত গ্রাম লক ডাউন ঘোষণা মাগুরায় ৫ শতাধিক ইমাম মোয়াজ্জিনের মধ্যে এমপি শিখরের নগদ অর্থ ও খাদ্য সহায়তা প্রদান মাগুরায় আশুলিয়া থেকে ফেরত যুবক করোনায় আক্রান্ত গ্রাম লকডাউন মাগুরায় ইঞ্জিনিয়ার মিরাজের নেতৃত্বে ১৪শত পরিবারের মধ্যে ত্রাণ ও স্যানিটাইজার বিতরণ মাগুরাসহ যশোর অঞ্চলে জনসচেতনায় কাজ করে যাচ্ছে সেনা সদস্যরা করোনা প্রতিরোধে মাগুরা সিভিল সার্জনকে জাসদের ৭টি প্রস্তাব
মাগুরায় উদ্বিগ্ন জন সাধারণ: আরো এক কিশোরকে গলাকেটে হত্যার চেষ্টা

মাগুরায় উদ্বিগ্ন জন সাধারণ: আরো এক কিশোরকে গলাকেটে হত্যার চেষ্টা

মাগুরা প্রতিদিন ডটকম : পরপর দুটি গলাকাটা লাশ উদ্ধারের পর এবার মাগুরায় একটি মাদরাসায় ঘুমিয়ে থাকা শিক্ষার্থিকে ধারালো অস্ত্র দিয়ে জবাই করার চেষ্টা চালানো হয়েছে। বর্তমানে সে আশঙ্কামুক্ত বলে জানিয়েছেন চিকিত্সকরা। ঘটনাটি সদর উপজেলার বাগবাড়িয়া দারুল কোরআন হাফেজিয়া মাদরাসায়।

গত সোমবার রাতে মাগুরার মহম্মদপুর উপজেলার পাড়ুয়ার কুল গ্রামে ইমন নামে মাগুরা টেকনিক্যাল কলেজের এক শিক্ষার্থি এবং পরদিন সদর উপজেলার কুকিলা গ্রামে আল আমিন নামে অপর এক কিশোরকে গলাকেটে হত্যা করা হয়। ওই দুটি ঘটনার দুইদিন পরই নতুন করে হাবিবুল্লাহ নামে মাদরাসা শিক্ষার্থি উপর একই রকম হামলার ঘটনায় স্থানীয় সাধারণ মানুষের মাঝে দারুন উদ্বেগের সৃষ্টি হয়েছে।

মাগুরা সদর উপজেলার বাগবাড়িয়া দারুল কোরআন হাফেজিয়া মাদরাসা সংশ্লিষ্টরা জানান, মাদরাসাটিতে ৬০ জন আবাসিক শিক্ষার্থি কোরআন শিক্ষা গ্রহণ করে। যারা লেখাপড়া এবং রাতের খাবার গ্রহণের পর মাদরাসার ভিতরেই রাত্রিযাপিন করে থাকে। বৃহস্পতিবার রাতে আল আমিন, মোহাম্মদ আলি, সোয়াইব, হাবিবুল্লাহ এবং আবদুল আজিজ নামে এই ৫ শিক্ষার্থি রাতের খাবার শেষে মাদরাসা সংলগ্ন মসজিদের খোলা বারান্দায় ঘুমিয়ে পড়ে। কিন্তু রাত ৩টার দিকে এদের মধ্যে হাবিবুল্লাহ (১৫) নামে এক শিক্ষার্থির চিৎকারে অন্য চার শিক্ষার্থি ঘুম ভেঙ্গে দেখে তাদেরকেও অন্ধকারে কেউ শক্ত করে ধরে আছে। এ সময় আতঙ্কিত শিক্ষার্থিদের চিৎকারে মসজিদ ও মাদরাসার ভিতর থেকে অন্য শিক্ষার্থিরা বেরিয়ে এলে হামলাকারিরা পালিয়ে যায়। পরে শিক্ষার্থি হাবিবুল্লাহর ঘাড়ে-মুখে রক্ত দেখতে পেয়ে তাকে মাগুরা ২৫০ শয্যা হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

এ বিষয়ে মাগুরা ২৫০ শয্যা হাসপাতালের দায়িত্বরত চিকত্সক সফিউর রহমান বলেন, ছেলেটির ঘাড়ে ধারালো কোন অস্ত্র দিয়ে আঘাত করা হয়েছে। মুখেও আঘাত লেগেছে। তবে ঘাড়ের আঘাতটি গভীর হলে বড় রকমের ক্ষতির সম্ভাবনা ছিল। কিন্তু সেটি না হওয়ায় বর্তমানে সে আশঙ্কামুক্ত।

বাগবাড়িয়া দারুল কোরআন হাফেজিয়া মাদরাসার অধ্যক্ষ মাওলানা ওয়ায়েজ আসমত বলেন, রাতের বেলা মসজিদে বৈদ্যুতিক বাল্ব জ্বালানো থাকে। কিন্তু ঘটনার সময় সেখানকার বাল্বগুলো বন্ধ করে শিক্ষার্থিদের উপর হামলা চালানো হয়েছে। যে কারণে কোন শিক্ষার্থিই অন্ধকারে হামলাকারীকে দেখতে পায়নি।

এদিকে সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা সিরাজুল ইসলাম বলেন, ইতোমধ্যেই মাদরাসার পাশে একটি পাটক্ষেত থেকে হামলায় ব্যবহৃত ছোরাটি উদ্ধার করা গেছে। পুরণো কোন বিরোধের জের ধরেই এই হামলার ঘটনা ঘটেছে বলে ধারণা করা যাচ্ছে। তবে আশা করছি খুব শিগগিরই এই হামলার সঙ্গে জড়িতদের আটক করা সম্ভব হবে।

শেয়ার করুন...




©All rights reserved Magura Protidin.
IT & Technical Support :BiswaJit