আজ, বৃহস্পতিবার | ১৩ই কার্তিক, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ | ২৯শে অক্টোবর, ২০২০ ইং | সকাল ১০:৩৭

ব্রেকিং নিউজ :
মাগুরার দুরাননগরে যুবকদের শ্রম বিক্রির অর্থে দরিদ্র মানুষের ঘরে ত্রাণ মহামারি করোনা : হেসে উঠুক আমাদের ভালবাসার পৃথিবী মাগুরায় করোনা রোগী: ভয় নয়, আরও দায়িত্বশীল হই চাউলিয়া ইউনিয়নের বিভিন্ন গ্রামে ত্রাণ নিয়ে অসহায় মানুষের পাশে সাহেব আলি ছকাতি মাগুরায় ঢাকা থেকে ফেরা আরো এক যুবক করোনা আক্রান্ত গ্রাম লক ডাউন ঘোষণা মাগুরায় ৫ শতাধিক ইমাম মোয়াজ্জিনের মধ্যে এমপি শিখরের নগদ অর্থ ও খাদ্য সহায়তা প্রদান মাগুরায় আশুলিয়া থেকে ফেরত যুবক করোনায় আক্রান্ত গ্রাম লকডাউন মাগুরায় ইঞ্জিনিয়ার মিরাজের নেতৃত্বে ১৪শত পরিবারের মধ্যে ত্রাণ ও স্যানিটাইজার বিতরণ মাগুরাসহ যশোর অঞ্চলে জনসচেতনায় কাজ করে যাচ্ছে সেনা সদস্যরা করোনা প্রতিরোধে মাগুরা সিভিল সার্জনকে জাসদের ৭টি প্রস্তাব
করোনা আতঙ্কে মহম্মদপুর স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স রোগীশূন্য

করোনা আতঙ্কে মহম্মদপুর স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স রোগীশূন্য

মাগুরা প্রতিদিন ডটকম : করোনা ভাইরাস আতঙ্কে রোগীশূন্য হয়ে পড়েছে মাগুরার মহম্মদপুর উপজেলার ৫০ শয্যা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স। করোনা ভাইরাসের ঝুঁকি ঠেকাতে স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স থেকে একটি মোবাইল নম্বর দিয়ে সর্দি, জ¦র, কাশি ও শ্বাসকষ্ট রোগীদের সেবা নিতে অনুরোধ করেছে হাসপাতাল কতৃপক্ষ।

করোনা প্রাদুর্ভাব শুরুর আগে স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি রোগী বেড না পেয়ে বিভিন্ন জায়গায় চিকিৎসা নিতে দেখা গেছে। অন্যদিকে বহির্বিভাগে চিকিৎসা নিতে হাসপাতালে আসতো প্রতিদিন শতশত রোগী। সেখানে করোনা আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ায় অনেক ভর্তি হওয়া রোগী হাসপাতালের ছেড়ে বাড়িতে চলে গেছে এবং বহির্বিভাগেও রোগীর সংখ্যা অনেক কমে গেছে।

শনিবার সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, হাসপাতালের নারী ও পুরুষ ওয়র্ডের প্রায় সকল বেডই ফাঁকা পড়ে আছে। বড় ধরনের অসুস্থতা ছাড়া কেউ হাসপাতালে ভর্তি হচ্ছে না বলে জানা যায়। বহির্বিভাগে করোনা আতঙ্কের কারণে নেই আগের মতো দীর্ঘ লাইন। অলস সময় পার করছেন ডাক্তার ও সেবিকাসহ অন্যান্যরা।

হাসপাতাল সূত্রে জানা যায়, স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স ৫০ শয্যা হলেও রোগী ভর্তি থাকে প্রায় সময়ই ৬০-৭০ জন কিন্তু করোনা ভাইরাস আতঙ্কের কারণে বর্তমানে ১২ জন রোগী ভর্তি রয়েছে। ভর্তিকৃত রোগীদের মধ্যে সবাই মারামারির রোগী। এছাড়া বহির্বিভাগে প্রতিদিন গড়ে ডাক্তারের সেবা নিতো ৩৫০ থেকে ৪০০ রোগী কিন্তু বর্তমানে সেবা নিতে আসে মাত্র ৪০ থেকে ৫০ জন।

স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের আবাসিক মেডিকেল অফিসার ডা. কাজী আবু আহসান বলেন, করোনা ভাইরাসের কারণে কোন রোগী ভর্তি হচ্ছে না। ভর্তি হওয়া অনেক রোগী হাসপাতাল ছেড়ে বাড়িতে চলে গেছে। তবে এখন আউটডোরে যেসব রোগী আসছেন তাদের শতকরা ৯০ ভাগই রোগীই জ¦র, কাশি, শ্বাসকষ্টের লক্ষণ নিয়ে আসছেন। সেক্ষেত্রে তাদের বাড়িতে বসে সেবা নেওয়ার জন্য হাসপাতালের হটলাইন নাম্বার (০১৭৩০৩২৪৬০৭) চালু করা হয়েছে। এ সব রোগীদের মোবাইল ফোনে সেবা নেওয়ার জন্য অনুরোধ করা হয়েছে।

শেয়ার করুন...




©All rights reserved Magura Protidin.
IT & Technical Support :BiswaJit